Actor Abdul Kader (famous for Bodi or Mama in ityadi) passes away on 26th Dec 2020

Veteran actor Abdul Kader, well-known for playing iconic comedy characters on television, has died at a hospital in Dhaka, at the age of 69.

He was diagnosed with stage IV cancer and later tested positive for Covid-19

The renowned actor, who was diagnosed with stage IV cancer and later tested positive for Covid-19, breathed his last at Evercare Hospital around 8:20am on Saturday while undergoing treatment there, confirmed actor Shahidul Alam Sachchu, reports Bangla Tribune.

Earlier, he was shifted to the intensive care unit (ICU) of the hospital in the early hours of Friday after his condition deteriorated.

abdul kader died, actor abdul kader famous natok, abdul kader mama in ittadi

Abdul Kader in ‘Kothao Keu Nei’ | Collected

The actor left behind his wife, son, daughter, a host of relatives and well-wishers to mourn his death.

Meanwhile, people from all walks of life, including celebrities, cultural personalities and politicians, paid tributes to the actor and offered condolences on various social media.

President Md Abdul Hamid and Prime Minister Sheikh Hasina expressed deep shock and sorrow at the demise of the popular actor, reports UNB.

In a condolence message, the prime minister said Abdul Kader will live on in the hearts of people for his spontaneous acting.

Abdul Kader’s Bodi character brings immense popularity

Both the president and the premier prayed for the eternal salvation of the departed soul and expressed sympathy to the bereaved family.

Besides, Information Minister Hasan Mahmud, among other cabinet members, mourned the death of Kader.

The veteran actor returned home from Christian Medical Hospital in India’s Chennai on December 20 and got admitted to Evercare Hospital where his coronavirus test result came out positive the following day.

Kader went to Chennai on December 8 for treatment as he fell sick and the doctors there diagnosed him with stage IV pancreatic cancer which had already spread to different parts of his body.

The doctors in Chennai could not provide him with chemotherapy due to the actor’s extremely weak and critical health condition.

Kader’s family was waiting for further progress of his ailing health so that he can be treated with chemotherapy once his body regains strength, however, things went more critical as he was infected with Covid-19.

Born in 1951 at Sonarang village of Tongibari upazila in Munshiganj, Kader obtained his honours and master’s from the Department of Economics at Dhaka University.

He also maintained a professional career at the footwear retailer, Bata, for decades. (Source: dhakatribune.com)

Actor Abdul Kader Biography

আব্দুল কাদের (মৃত্যু: ২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ঢাকা)[৩] ছিলেন বাংলাদেশের একজন খ্যাতিমান নাট্যকার এবং অভিনেতা। ১৯৯৪ সালে কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের লেখা ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটকে তিনি ”বদি” চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন। বাংলাদেশের টেলিভিশন দর্শকদের কাছে তিনি বদি নামেই পরিচিত। আব্দুল কাদের অভিনয়ে অত্যন্ত জনপ্রিয় হলেও এটি তার মূল পেশা নয়। তিনি একটি কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আব্দুল কাদের মুন্সীগঞ্জ জেলার টংগিবাড়ী উপজেলার সোনারং গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। পিতা আবদুল জলিল এবং মাতা আনোয়ারা খাতুন। তিনি খাইরুননেছা কাদেরকে বিয়ে করেছিলেন এবং দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

তিনি সোনারং হাইস্কুল ও বন্দর হাইস্কুল থেকে এস.এস.সি, ঢাকা কলেজ থেকে এইচ.এস.সি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে বিএ অনার্স ও এমএ করেছিলেন। অর্থনীতিতে সিঙ্গাইর কলেজ ও লৌহজং কলেজে অধ্যাপনা এবং বিটপী বিজ্ঞাপনী সংস্থায় এক্সিকিউটিভ হিসেবে চাকরির পর ১৯৭৯ সাল থেকে বহুজাতিক কোম্পানী ‘বাটা’তে উচ্চপদস্থ পদে কর্মরত ছিলেন।

১৯৭২-৭৪ পরপর তিন বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মহসিন হল ছাত্র সংসদের নাট্যসম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত ডাকসু নাট্যচক্রের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ছিলেন। ১৯৭৩ সাল থেকে থিয়েটার নাট্যগোষ্ঠীর সদস্য এবং চার বছর যুগ্ম-সম্পাদকের ও ছয় বছর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি থিয়েটারের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) হিসেবে ছিলেন। ১৯৭৪ সালে তিনি ঢাকায় আমেরিকান কলেজ থিয়েটার ট্রুপ কর্তৃক আয়োজিত অভিনয় কর্মশালায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছিলেন। আবদুল কাদের বাংলাদেশ টেলিভিশনের নাট্যশিল্পী ও নাট্যকারদের একমাত্র সংগঠন টেলিভিশন নাট্যশিল্পী ও নাট্যকার সংসদ’ টেনাশিনাস -এর সহ-সভাপতি ছিলেন।

৮ ই ডিসেম্বর শারীরিক অসুস্থতার কারণে তাকে ভারতে নেওয়া হয় এবং সেখানে তার ক্যান্সার সনাক্ত হয়। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

অভিনয় জীবন

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ডাকঘর’ নাটকে অমল চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তার প্রথম নাটকে অভিনয় শুরু করেছিলেন। ১৯৭২ সালে আন্তঃহল নাট্য প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন মহসিন হলের নাটক সেলিম আল দীন রচিত ও নাসিরউদ্দিন ইউসুফ নির্দেশিত ‘জন্ডিস ও বিবিধ বেলুন’ -এ সেরা অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার লাভ করেছিলেন। ১৯৭২ সাল থেকে টেলিভিশন ও ১৯৭৩ সাল থেকে রেডিও নাটকে অভিনয় শুরু করেছিলেন। টেলিভিশনে ওনার অভিনীত অভিনিত প্রথম কিশোর ধারাবাহিক নাটক ’এসো গল্পের দেশে’। থিয়েটার নাটকে প্রায় ৩০টি প্রযোজনা সহ এবং ১০০০টিরও বেশী প্রদর্শনীতে অভিনয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এছাড়া টেলিভিশনে প্রায় দুই হাজারের বেশী নাটকে অভিনয় করেছেন। জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদিতে নিয়মিত মামার চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

উল্লেখযোগ্য টিভিনাটক

কোথাও কেউ নেই, মাটির কোলে, নক্ষত্রের রাত, শীর্ষবিন্দু, সবুজ সাথী, তিন টেক্কা, যুবরাজ, আগুন লাগা সন্ধ্যা, এই সেই কন্ঠস্বর, আমার দেশের লাগি, প্যাকেজ সংবাদ, সবুজ ছায়া, কার ছায়া ছিল, দীঘল গায়ের কন্যা, কুসুম কুসুম ভালোবাসা, নীতু তোমাকে ভালোবাসি, আমাদের ছোট নদী, ভালমন্দ মানুষেরা, দুরের আকাশ, ফুটানী বাবুরা, হারানো সুর, দুলা ভাই, অজ্ঞান পার্টি, লোভ, মোবারকের ঈদ, বহুরুপী, এই মেকাপ, ঢুলী বাড়ী, সাত গোয়েন্দা, এক জনমে, জল পড়ে পাতা নড়ে, খান বাহাদুরের তিন ছেলে, ইন্টারনেটের বউ, ঈদ মোবারক, সিটিজেন, হতাই, ফাঁপড়, চারবিবি, সুন্দরপুর কতদুর, ভালবাসার ডাক্তার, চোরাগলী, বয়রা পরিবার।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে আব্দুল কাদের ২৬ ডিসেম্বর ২০২০ শনিবার সকাল ৮টা ২০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

এর আগে ভারতের চেন্নাইয়ের ভেলোর শহরের সিএমসি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে ২০ ডিসেম্বর দেশে ফেরার পর আবারো অসুস্থতা অনুভব করায় ওনাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল এবং মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত এখানেই ছিলেন। (Source: Wikipedia)

0Shares

About the author

We are working for you.